indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot
Home / Featured / জাপানে স্টুডেন্ট ভিসা কিছু প্রশ্ন ও উত্তর

জাপানে স্টুডেন্ট ভিসা কিছু প্রশ্ন ও উত্তর

Share This Article:

জাপানে স্টুডেন্ট ভিসা কিছু প্রশ্ন ও উত্তর :

১) জাপানে স্টুডেন্ট ভিসায় আসতে হলে মিনিমাম শিক্ষাগত যোগ্যতা HSC বা সমমমানের হতে হয় যেমন আলিম পাস বা পলিটেকনিক ইঞ্জিনিয়ারিং পাস.

২) সাধারণত: জাপানে স্টুডেন্ট ভিসা বলতে প্রথমে Language বা ভাষা কোর্সকে বুঝানো হয়ে থাকে.কোনো ছাত্র ২ বছর হতে ১.৯ বছর বা ১.৫ বছর বা ১ বছরের Language Course এর জন্য জাপান আসতে পারে.বিভিন্ন স্কুলের বিভিন্ন সেমিস্টারের উপর কোর্স মেয়াদ হয়ে থাকে.

৩) সেমিস্টার : সাধারণত: সেমিস্টার হলো এপ্রিল ও অক্টোবর মাস. তবে কিছু কিছু স্কুলে জানুয়ারী ও জুলাই সেমিস্টার আছে.

৪) টিউশন ফী : সাধারণত: Language কোর্সের জন্য ১ বছরের ফী দেয়া বাধ্যতামুলুক তবে সামান্য কিছু স্কুল আছে যারা ৬ মাসের ফী এলাও করে.

৫) Language কোর্স শেষ করে কি করবেন ? : Language কোর্স শেষ করার পর এখানে বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি ও Senmon Gakkho (বাংলাদেশের পলিটেকনিক সমমান ) সেই সব প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ আছে. কোনো ছাত্র বাংলাদেশ হতে যদি Graduation শেষ করেও আসে সে এখানকার Senmon Gakkho তে ভর্তি হতে পারবে. ইউনিভার্সিটি বা Senmon Gakkho গুলোর কোর্স ২-৪ বছর মেয়াদী হয়ে থাকে. কোনো ছাত্র একাদিক বার ও ভিন্ন বিষয়ে স্টাডি করতে পারবেন এমন কি একই ইনস্টিটিউট হলেও. স্টাডি শেষ করে এদেশে ওয়ার্কিং ভিসার সিস্টেম আছে. যে কেউ স্টাডি শেষে জব অথবা বিজনেস ভিসা নিয়ে এখানে অবস্থান করতে পারেন.

৬) জাপানে সিটিজেন বা পার্মানেন্ট ভিসার সিস্টেম : হা আছে তবে একটু সময় লাগে কিছু নিয়ম কানুন আছে সেগুলো পূরণ করতে হয়.

৭) কোনো ছাত্রকে স্টুডেন্ট ভিসায় আবেদন করতে হলে বাংলাদেশে জাপানি ভাষার উপর ৩-৬ মাসের একটা শর্ট কোর্স সার্টিফিকেট দেখাতে হয়. বাংলাদেশের অনেক প্রতিষ্ঠান আছে জাপানী ভাষা শিক্ষা দেয়া হয়)

৮) কাজের অনুমতি : ছাত্রদের সাপ্তাহিক ২৮ ঘন্টা কাজের অনুমতি আছে তবে বিভিন্ন ভ্যাকেশনে ৪০ ঘন্টা. অ্যাভারেজ ১ ঘন্টা কাজের ইনকাম ১০০০ ইয়েন. (একটু কম বেশি হতে পারে প্রতিষ্ঠান বুঝে) তবে সত্যি কথা হলো কাজ পাইলে সবাই সপ্তাহে ২৮ ঘন্টার বেশিই কাজ করে.

৯) স্টাডি ব্রেক : অনেক সময় অনেক ছাত্র HSC / Graduation শেষ করার পর ১/২/৩ বছর gap হয়ে যায়. নরমাল হিসাবে লং ব্রেক এলাও করতে চায় না তবে কিছু ফাক-ফোকর বের করে সিস্টেম করা যায় (কিছু কিছু ক্ষেত্রে) তবে খুব বেশি ব্রেক এলাও হয় না.

১০) সেমিস্টার শুরু হবার কতদিন আগে পেপার ওয়ার্ক শুরু করতে হয়?- সাধারণত: সেমিস্টার শুরু হবার ৩-৪ মাস আগেই এদেশের স্কুলে সব পেপার জমা দিতে হয় (স্কুল ইমিগ্রেশনে ফাইল জমা দেয়) তাই মিনিমাম ৬ মাস আগেই পেপার ওয়ার্ক শুরু না করলে প্রপারলি জমা দেয়া সম্ভব হয় না. কারণ পেপার রেডি করতে গেলে অনেক ভুল ভ্রান্তি হয়ে থাকে এবং সেইসব কারেশন করতে করতে সময় লেগে যায়.

পার্সোনাল কথা- অনেক সময় আমরা দেশে থাকলে মনে করি বিদেশ যাইতে পারলেই হলো বাকি হিসাব পরে.আসলে বিষয়টা এমন নয়.বিদেশ বিষয়টা অতীব জটিল বিষয়. আর যারা স্টুডেন্ট ভিসায় যায় তাদের আরো জটিল. তবে আমি শুধু জাপানের বিষয়ই তুলে ধরব. জাপান মোটামুটি বড় একটি দেশ. বাংলাদেশে যেমন ঢাকা একটি সিটি আবার রংপুর ও কিন্তু পার্থক্য নিশ্চয় বুঝতেছেন. এদেশে টোকিও ওসাকা ইত্যাদি সিটি যেমন আছে তেমন তেমনি অন্যান্য সিটিও আছে. সহজ কথা হলো বাংলাদেশ আর যে দেশরই হোক স্টুডেন্ট আর কাজ দুটাই সমার্থক. কারণ নিজের + স্কুল + দেশ এই হিসাব সবার কমন. কিন্তু সব সিটিতে কাজের সমান সুযোগ নেই এবংসিটি অনুযায়ী ইনকাম ও কম বেশি হয়ে থাকে. সার্বিক হিসাবে টোকিও হলো no -1.

* Feel Free To Ask Any Question Here :-

2275 Total Views 1 Views Today

Comments are closed.

indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot
x

Check Also

"Study in UK Student Visa"

Apply for The Russian Government Scholarships 2018-2019

Scholarships in Russia: The Ministry of Education and Science of the Russian ...

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow

indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot